সোমবার  ২৮শে মে, ২০১৮ ইং  |  ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ  |  ১৩ই রমযান, ১৪৩৯ হিজরী

টানা আট কার্যদিবস দরপতন

ডিএ: সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস আজ রোববার সূচক পতনের মধ্য দিয়ে দেশের উভয় বাজারে লেনদেন হয়েছে। এদিন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক কমেছে ২৮ পয়েন্ট। আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক কমেছে ৩৫ পয়েন্ট। সূচকের পাশাপাশি কমেছে লেনদেন ও বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম। এর ফলে টানা আট কার্যদিবস পুঁজিবাজারে দরপতন হলো। চলতি মাসের শুরু থেকে হওয়া দরপতনের পাল্লা দিনদিনই ভারি হচ্ছে।
এদিন ব্যাংক, বিমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং প্রকৌশল খাতের শেয়ারের দাম কমেছে। বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমায় লেনদেনও কমেছে। এই দরপতনের মধ্যেও শীর্ষ ব্রোকারেজ হাউজগুলো শেয়ার বিক্রি করছে। আর এতে বিনিয়োগকারীরা আরো বেশি ভয় পাচ্ছেন। তারা আতঙ্কিত হয়ে কম দামে শেয়ার বিক্রি করে দিচ্ছেন। ব্যক্তি পর্যায়ের বড় বিনিয়োগকারী ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা চুপ করে বসে আছেন। বিদেশিরাও শেয়ার বিক্রি করে বাজার ছাড়ছেন।
নাম প্রকাশ না শর্তে ডিএসইর শেয়ারহোল্ডার পরিচালক বলেন, চীনা কনসোর্টিয়ামকে ডিএসইর অংশীদারিত্ব করায় দেশি কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন গুজব ছড়িয়ে, শেয়ার বিক্রি করে দরপতন ঘটাচ্ছে। কিন্তু বাজার নিয়ন্ত্রণ সংস্থা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না। ফলে বিনিয়োগকারী এবং বাজার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তবে তিনি আশা করেন চীনা কনসোর্টিয়ামের সঙ্গে চুক্তি হয়ে গেলে বাজার ঘুরে দাঁড়াবে।
ডিএসই’র তথ্য মতে, গতকাল রোববার ১০ কোটি ৮১ লাখ ৭২ হাজার ৮৯৪টি সিকিউরিটিজের হাতবদল হয়েছে। এতে লেনদেন হয়েছে ৩৭৮ কোটি ৭৯ লাখ ৩৯ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৫৬২ কোটি ৪৭ লাখ ৫৭ হাজার টাকা। তার আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫৬০ কোটি ৩৫ লাখ ৬৩ হাজার টাকা। ডিএসই’র তিন সূচকের মধ্যে ব্রড ইনডেক্স আগের কার্যদিবসের চেয়ে ২৮ দশমিক ৫৪ পয়েন্ট কমে পাঁচ হাজার ৫৫৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। তবে এদিন ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১ দশমিক ৮৩ পয়েন্ট বেড়ে দুই হাজার ৭৫ পয়েন্টে এবং শরিয়াহ সূচক ৫ দশমিক ৩৫ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৩০১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৭৫টির, কমেছে ২১৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টির। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক ৩৫ দশমিক ০৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৩৯৪ পয়েন্টে। দিনটিতে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৭ কোটি ১৬ লাখ ৭৭ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ২৭ কোটি ৫১ লাখ ২৭ হাজার টাকার। তার আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২২ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। সিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৫১টির, কমেছে ১৫৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির।

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

আপনার ইমেল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত *

*

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com