বুধবার  ২১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং  |  ৭ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ  |  ১০ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী

মোরেলগঞ্জে মসলা জাতীয় ফসল উৎপাদনের কৃষকের সাফল্য

মেহেদী হাসান লিপনঃ বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে মসলা জাতীয় ফসল (মরিচ) উৎপাদন করে সাফলতা দেখাতে সক্ষম হয়েছেন কৃষক নজরুল ইসলাম খান। বাম্পার ফলন আর প্রতিদিন দু’বেলা মরিচ তুলে বিক্রি করে বেজাল খুশি তিনি। আর এতে তিনি লাভবান হওয়ার পাশপাশি সংসারে স্বাচ্ছন্দ ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন।
উপজেলা সদর ইউনিয়নের কাঠালতলা গ্রামের মৃত. হানিফ খানের পুত্র নজরুল ইসলাম খান। কাঠালতলার চরের নিজের ৪০ শতক জমিতে হাইব্রিড কাঁচা মরিচের চাষ করেন। কার্তিক- অগ্রহায়ন মাসে জমি চাষ করে এ হাইব্রিড মরিচ বপণ করেন। এর আগে তিনি ঢাকা থেকে বীজ এনে চারা উৎপাদন করেন। তিনি নিজেই জমিতে টিএসপি ৭০ কেজি, পটাশ ২৪ কেজি, দস্তা সার ৩ কেজি জিপসাম ২৪ কেজি সার প্রয়োগ সহ ১৫ হাজার টাকার মত ব্যয় করেন।
পহেলা চৈত্র থেকে তিনি মরিচ তুলে বাজারজাত শুরু করছেন। সকালে একবার বিকেলে একবার ফলন তুলতে হয়। এভাবে প্রতিদিন ৩-৪ মন মরিচ বাজারজাত করতে সক্ষম হন। লোকবলের কারনে যে পরিমান মরিচ পরিপক্ক হয় সে পরিমান মরিচ তুলতে পারছেন না। নিজে স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে দ’ুবেলা মরিচ তুলেন। বর্তমানে মরিচের পাইকারী দর ৪০ টাকা। সে হিসেবে তিনি প্রতিদিন ১২০০-১৬০০ টাকার মরিচ বিক্রি করেন। এভাবে প্রায় আড়াই থেকে ৩ মাস মরিচ বিক্রি করতে পারবেন। কৃষক নজরুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে মরিচের বাজার দর কম। সামনে দর আরো একটু বৃদ্ধি পেলে আরো বেশি দরে বিক্রি করতে পারবেন। অনেক পাইকারী ব্যবসায়ী ক্ষেত থেকেই মরিচ কিনে নিযে যায়। মরিচের বাম্পার ফলনে তিনি বেজায় খুশি। এ ফসল উৎপাদনে উপজেলা কৃষি দপ্তরের সহযোগীতার ও যথাসময়ে পরামর্শ পেয়ে তিনি আরো উপকৃত হয়েছেন।
উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন বলেন, মসলা জাতীয় ফসলের চাষ বৃদ্ধির পাশাপাশি কৃষকদের এ চাষে আগ্রহ বাড়ছে। আর এ জাতীয় ফসল উৎপাদনে অল্প খরচে অনেক লাভবান হওয়া সম্ভব। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ অনুপম রায় জানান, মোরেলগঞ্জ উপজেলার কোন জমি অনাবাদি রাখা যাবেনা। সে ব্যাপারে সকল উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। উপজেলা কৃষি দপ্তর কৃষি ও কৃষকদের উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

আপনার ইমেল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত *

*

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com