মঙ্গলবার  ১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং  |  ৪ঠা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ  |  ১১ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

শিল্প-কারখানায় গ্যাস চুরি ও অতিরিক্ত বিল ঠেকাতে বিশেষ মিটার বসানোর নির্দেশ

এক্সক্লুসিভ: বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) সকল শিল্প-কারখানায় গ্যাস চুরি ও অতিরিক্ত বিল আদায় রোধে বিশেষ মিটার বসানোর নির্দেশ দিয়েছে। কারণ দীর্ঘদিন ধরেই দেশের শিল্প ও বাণিজ্যিক খাতের অনেক গ্রাহকই ব্যবহৃত গ্যাসের চেয়ে বেশি বিল দিচ্ছে বলে অভিযোগ করে আসছিল। তাদের দাবি, গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো অপেক্ষাকৃত কম চাপের গ্যাস দিয়ে বেশি চাপের গ্যাসের বিল নিয়ে যাচ্ছে। এমন অভিযোগ-দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ইভিসি (ইলেক্ট্রনিক ভলিউম কারেক্টর) মিটার বসাতে ২০১৫ সালে ৩ বছর সময় বেঁধে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তা বাস্তবায়ন হয়নি। বরং বিইআরসি ২০১৮ সালে ওই সময়সীমা শেষ হওয়ার পর আরো একবছর সময় বাড়িয়েছে। বিইআরসি সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।
সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, গ্যাস বিতরণকারী কোম্পানিগুলোকে আগামী এক বছরের মধ্যে দেশের সকল শিল্প-কারখানায় গ্যাসের চুরি ও অপব্যবহার রোধ এবং ব্যবহারের চেয়ে অতিরিক্ত বিল ঠেকাতে ইভিসি মিটার বসাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ওই নির্দেশনার আওতায় রয়েছে ক্যাপটিভ বিদ্যুৎকেন্দ্র সিএনজি ফিলিং স্টেশন এবং মিটারভিত্তিক আবাসিক গ্রাহক। গ্রাহকদের যাতে তাদের ব্যবহৃত গ্যাসের পরিমাণের চেয়ে কম বা বেশি বিল দিতে না হয় সেজন্যই ওই মিটার বসানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
সূত্র জানায়, পেট্রোবাংলার তথ্যানুযায়ী আবাসিক খাতে দেশের ১৬ ভাগের মতো গ্যাস ব্যবহার করা হয়। আর বিদ্যুতে ৪০ শতাংশ, শিল্পে ১৭ শতাংশ, ক্যাপটিভে ১৬ শতাংশ, সিএনজি ও সার কারখানায় প্রায় ৫ শতাংশ করে গ্যাস ব্যবহৃত হয়। তবে বিতরণ করা গ্যাসের একটি বড় অংশই অবৈধভাবে ব্যবহার হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। ইতিমধ্যে বিতরণ কোম্পানির এক শ্রেণির কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং স্থানীয় প্রভাবশালীদের যোগসাজশে গ্যাসের অবৈধ ব্যবহারের বিষয়টি বিভিন্ন তদন্তেও উঠে এসেছে।
সূত্র আরো জানায়, গ্যাস ব্যবহারের মাসিক হিসাবে নিত্যব্যবহৃত পণ্যটির ক্রয়-বিতরণের মধ্যে তেমন কোনো পার্থক্য পাওয়া যায় না। উল্টো কোনো কোনো ক্ষেত্রে বিতরণ কোম্পানিগুলো পেট্রোবাংলার কাছ থেকে যে গ্যাস কিনছে, তার চেয়ে বেশি গ্যাস বিক্রি করছে দেখানো হয়। তাতে বিতরণ কোম্পানিগুলোর অবৈধ ব্যবহার বন্ধের দিকে নজর থাকে না। একইভাবে গ্রাহকসেবার দিকেও তারা তাকায় না। বরং গ্যাসের চাপের তারতম্যের সুযোগ নেয় বিতরণ কোম্পানিগুলো।
এ প্রসঙ্গে বিইআরসি’র এক সদস্য জানান, আরো আগেই ইভিসি মিটার বসাতে কোম্পানিগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা তা করতে পারেনি। এ অবস্থায় নতুন নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী, আগামী এক বছরের মধ্যে মিটার বসানোর কাজ শেষ করতে হবে।

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

আপনার ইমেল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত *

*

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com