ডিএ: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দর দেওয়া একটি ছাগলের মৃত্যুর খবর ফেসবুকে শেয়ার করা সাংবাদিক আবদুল লতিফ মোড়লকে জামিন দিয়েছেন আদালত। বুধবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে খুলনার বিচারিক হাকিম নুসরাত জাবিন ওই সাংবাদিকের জামিন মঞ্জুর করেন। গত সোমবার দিবাগত রাতে ডুমুরিয়া উপজেলা সদরের নিজ বাড়ি থেকে আবদুল লতিফকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তিনি খুলনা শহর থেকে প্রকাশিত দৈনিক প্রবাহের ডুমুরিয়া উপজেলা প্রতিনিধি। তাঁর বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের ৫৭ ধারায় মামলা করা হয়েছিল। আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান মোল্লা বলেন, জামিনের শুনানি শেষে আদালত ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় তাঁর জামিন দেন। এই জামিন পুলিশের অভিযোগপত্র না দেওয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে। এর আগে ডুমুরিয়া থানার ওসি সুকুমার বিশ্বাস জানিয়েছিলেন, সাংবাদিক আবদুল লতিফ মোড়লের বিরুদ্ধে সোমবার রাতে সুব্রত ফৌজদার নামের এক ব্যক্তি বাদী হয়ে ৫৭ ধারায় মামলাটি দায়ের করেন। তিনি বলেছিলেন, গত ৩০ জুলাই একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমে ‘প্রতিমন্ত্রী ছাগল দিলেন সকালে, মারা গেল রাতে’ শিরোনামের একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সেটি ফেসবুকে শেয়ার করেন আবদুল লতিফ। এতে তিনি প্রতিমন্ত্রীর একটি ছবি দেন এবং কটাক্ষ করে মন্তব্য করেন। সে বিষয়টি উল্লেখ করে আবদুল লতিফের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার রাতে মামলাটি গ্রহণ করে গভীর রাতেই ডুমুরিয়ার বাসা থেকে ওই সাংবাদিককে গ্রেফতার করা হয়। ওসি আরো জানান, মামলার বাদী যশোর থেকে প্রকাশিত একটি আঞ্চলিক দৈনিকের সাংবাদিক এবং দুজনের বাড়িই ডুমুরিয়ায়। তবে স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে, বাদী সাংবাদিক নন। তিনি খুলনা-৫ আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে প্রতিমন্ত্রী হওয়া নারায়ণ চন্দ্র চন্দর অনুগত লোক।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে