আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পায়ে পাড়া দিয়ে যুদ্ধ বাধাতে চাইছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। সবচেয়ে শক্তিশালী পারমাণবিক বোমা দিয়ে যুদ্ধ করতে চাইছেন তিনি। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক জরুরি সভায় কিম সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি। খবর বিবিসির। নিউয়ইয়র্কে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে নিকি হ্যালি বলেন, আমেরিকা কখনো যুদ্ধ করতে চায় না। কিন্তু তাদের পক্ষেও আর ধৈর্য ধরে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। উত্তর কোরিয়ার আরো কড়া নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তাব আনবে যুক্তরাষ্ট্র। উত্তর কোরিয়ার প্রধান মিত্র দেশ চীন আলোচনায় ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছে। এ ক্ষেত্রে মধ্যস্ততা করার প্রস্তাব দিয়েছে সুইজারল্যান্ড।
নতুন ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছে উত্তর কোরিয়া। রবিবার হাইড্রোজেন বোমার সফল পরীক্ষা চালিয়েছে দেশটি।
বোমাটি ৫০ কিলোটন থেকে ১২০ কিলোটন শক্তিসম্পন্ন। তবে নিষেধাজ্ঞা চাপালেই সমস্যার সমাধান হবে না বলে উল্লেখ করেছেন জাতিসংঘের রুশ রাষ্ট্রদূত বাসিলি নেবেনজিয়া। তার মতে, নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। সন্ধি স্থাপনের ব্যবস্থা করতে হবে। আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার।
রবিবারের হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তারপরই জরুরি বৈঠক ডাকা হয়। সেখানে উত্তর কোরিয়ার ওপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা চাপানোর প্রস্তাবে একমত হয়েছে জাপান এবং ফ্রান্স। জাপানের ওপর দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করায় গত মাসেই উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে জাতিসংঘ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে