ডিএ: রাজশাহীর তানোরে অপহরনের ও নির্যতিনের শিকার রেষ্টুরেন্ট কর্মচারীকে পুলিশ উদ্ধার করলেও ২দিনেও থানায় কোন মামলা হয়নি। ফলে নির্যাতনের স্বীকার ওই কর্মচারী চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। তানোর থানার ওসি রেজাউল ইসলাম বলেন, ওই কর্মচারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভুর্তি করা হয়েছে, চিকিৎসা শেষে মামলা করার কথা, কিন্তু এখন পর্যন্ত মামলা করার জন্য কেউ আসেনি। উল্লেখ্য, তানোরে পূর্ব শক্রুতার জের ধরে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ইসলামীয়া হোটেল এ- রেষ্টুরেন্টের মালিক আলম সরদার (৩৫) তার কর্মচারী সুইট (২৫) ও শুভ (২০) রুচিতা হোটেলের কর্মচারী এমদাদুল হক মান্না (৩০) কে ঘুম থেকে ডেকে নিয়ে বেধড়ক ভাবে মারপিট করতে করতে তাকে তুলে নিয়ে ইসলামীয়া হোটেল এ- রেষ্টুরেন্টের মালিক আলম সরদারের গুবির পাড়াস্থ নিজ বাড়িতে দফায় দফায় নির্যাতন করতে থাকে। পর দিন বুধবার সকালে রুচিতা হোটেল এ- রেষ্টুরেন্টের মালিক সালাউদ্দিন মান্নাকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করার একপর্যায়ে তানোর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তানোর থানার এএসআই শরিফুল ইসলাম সংগীয় ফোর্সসহ ইসলামীয়া হোটেল এ- রেষ্টুরেন্টের মালিক আলম সরদারের গুবিরপাড়াস্থ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে হাত-পা বাধা অবস্থায় হোটেল কর্মচারী মান্নাকে উদ্ধার করে মূমুর্ষ অবস্থায় তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন। তানোর থানার ওসি রেজাউল ইসলাম বলেন, কর্মচারীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে