ডিএ: ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় বিশখালি নদীতে লঞ্চের ধাক্কায় সিমেন্ট ভরতি ট্রলার ডুবে নিখোঁজ হওয়া দুই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করছেন ডুবুরিরা। আজ বৃহস্পতিবার ডুবে যাওয়া ওই ট্রলার থেকে এ দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয় বলে কাঁঠালিয়া থানার ওসি এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান। তিনি বলেন, বেলা ১১ টার দিকে ট্রলারের সুকানী পান্নু মিয়ার এবং দুপুর দেড়টার দিকে হাসান মহাজনের লাশ উদ্ধার করেন নৌবাহিনীর ডুবুরিরা। পান্নু মিয়া ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার চল্লিশ কাহনিয়া গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে এবং হাসান মহাজন ভোলার লালমোহন উপজেলার ইয়াসিন মহাজনের ছেলে। ওসি শওকত জানান, বাংলাদেশ নৌবাহিনীর খুলনা নৌ অঞ্চলের লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মোখলেছুর রহমানের নেতৃত্বে ১১ সদস্যের একটি উদ্ধারকারী দল গত বুধবার সকাল থেকে উদ্ধার কাজ শুরু করে। মঙ্গলবার ভোররাতে বিষখালি নদীর মশাবুনিয়া সৈলারাচর এলাকায় এক হাজার ৫৬০ বস্তা সিমেন্ট বোঝাই নোঙর করা ট্রলারটিকে বরগুনাগামী যাত্রীবাহী লঞ্চ এম ভি পূবালী-১ ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ট্রলারে থাকা তিন শ্রমিকের মধ্যে মাওলাদ হোসেন সাঁতরে তীরে ওঠেন। নিখোঁজ ছিলেন পান্নু ও হাসান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে