ডিএ: শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলায় পূর্ব বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোর নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উপজেলার কুচাইপট্টি ইউনিয়নের চরমাইজারা গ্রামের সাইক্কা ব্রিজে গত শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে গোসাইরহাট থানার ওসি এসএম মেহেদী মাসুদ জানান। নিহত সাইফুল ইসলাম পাইক ওই এলাকার আলমগীরের ছেলে ও স্থানীয় চর মাইজারী উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল। এ ঘটনায় সাইফুলের মামাতো ভাই সৈকত হোসেন আহত হয়েছে। তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। নিহতের মা নারগিস বেগম বলেন, তার ভাই জুয়েল ও একই গ্রামের কামাল সরদার সৌদি আরবে একটি স্বর্ণের দোকানে কাজ করে। কয়েকদিন আগে অবৈধভাবে বসবাসের অভিযোগে সৌদি পুলিশ কামালকে আটক করে। এ ঘটনার জন্য কামালের বাড়ির লোকজন জুয়েলকে দায়ি করে। এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। এর জেরে গত শনিবার সন্ধ্যায় পাইক ও সৈকত সাইক্কা ব্রিজে গেলে সেখানে কামালের ভাই জামাল সরদার ও আবু বকর সরদারের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে জামাল ও আবু বকর একটি কাঁচের বোতল ভেঙ্গে ও ছুড়ি দিয়ে সাইফুলের বুকে আঘাত করে এবং সৈকতকে কুপিয়ে জখম করে। তাদের উদ্ধার করে গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাইফুলের মৃত্যু হয় বলে নারগিস জানান। এ ঘটনায় সাইফুলের বাবা আলমগীর বাদী হয়ে রাতেই নয় জনকে আসামি করে গোসাইরহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন বলে ওসি মেহেদী জানান। তিনি বলেন, ঘটনার পর মামলার দুই আসামি জামাল ও আবু বকরকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। বাকিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে