আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বুলগেরিয়ায় কয়েকদিন আগে সংস্কার করা সড়কে দুর্ঘটনায় ১৭ জনের প্রাণহানির পর প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, ওই কাজে অনিয়ম হয়েছিল। এ ঘটনায় দেশজুড়ে কঠোর সমালোচনার মধ্যে দেশটির স্বরাষ্ট্র, পরিবহন ও সরকারি কাজ বিষয়ক মন্ত্রীকে পদত্যাগের আহ্বান জানান ডানপন্থী প্রধানমন্ত্রী বয়কো বারিসভ। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে পদত্যাগ করেছেন পরিবহনমন্ত্রী ইভাইলু মস্কোভস্কি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভ্যালেন্তিন রাদেভ এবং আঞ্চলিক উন্নয়ন ও সরকারি কাজ বিষয়ক মন্ত্রী নিকোলাই নানকোভ। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এই খবর জানিয়েছে। গত শনিবার পশ্চিম বুলগেরিয়ায় মৌসুমি বৃষ্টিপাতের মধ্যে একটি পর্যটকবাহী বাস রাস্তা থেকে ছিটকে জর্জ নদীর ২০ মিটার খাদে পড়ে যায়। এতে বাসটিতে থাকা ১৭ আরোহী নিহত হন। মারাত্মক আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরও চারজন। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে গঠিত হয় তদন্ত দল। প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, সম্প্রতি সড়কটি সংস্কারের সময় নিম্ন মানের উপকরণ ব্যহার করা হয়েছিল। এই রিপোর্ট সামনে আসার পর সমালোচনার মুখে মন্ত্রীদের পদত্যাগ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী বয়কো বারিসভ। তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির জন্য তিন মন্ত্রীকে রাজনীতিবিদ হিসেবে দায় নিতে হবে। দুর্ঘটনার নৈতিক দায় গ্রহণ করেছেন সদ্য পদত্যাগী পরিবহনমন্ত্রী। অন্য দুইজনকে সঙ্গে নিয়ে সোফিয়ায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এ ঘটনার যাবতীয় রাজনৈতিক দায় কাঁধে নিয়ে আমরা সরে যাচ্ছি। অবশ্যই সড়ক দুর্ঘটনা রোধে আমাদের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত ছিল।’ ইউরোপ ও বলকান অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনাপ্রবণ দেশ বুলগেরিয়া। ২০১৭ সালে দেশটিতে সড়ক দুর্ঘটনার ৬৪৮ জনের প্রাণগহানির ঘটনা ঘটেছে। ২০১৮ সালে এসে এ সংখ্যা আরও বেড়েছে। সূত্র: ফ্রান্স ২৪।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে