অর্থনীতি: বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে টাকা উত্তোলনের লক্ষ্যে আগামি ৩১ জানুয়ারি থেকে আবেদন শুরু করবে রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড। যা চলবে ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।
প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে এ টাকা উত্তোলন করছে।
কোম্পানির প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা (সিএফও) নজরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিওর) বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজার থেকে ১০০ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য অনুমোদন পেয়েছে রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড। সেই লক্ষ্যে বিডিং শেষ হয়েছে। বিডিংয়ে কাট অফ প্রাইস নির্ধারিত হয়েছে। এরপর পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য আবেদনের অনুমোদন দিয়েছে।
সেই প্রেক্ষিতে দুই স্টক এক্সচেঞ্জ ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রম আইপিওতে আবেদনের তারিখ নির্ধারণ করেছি। আগামি ৩১ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে। যা চলবে ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বলেও জানান সিএফও।
বিএসইসি সূত্র জানায়, রানারকে পুঁজিবাজার থেকে ১০০ কোটি টাকা উত্তোলনের জন্য গত বছরের ১০ জুলাই বিএসইসি অনুমোদন দেয়। এরপর কোম্পানিটি বিডিংয়ের আয়োজন করে।
কারণ বিডিংয়ে যোগ্য বিনিয়োগকারীদের কাছে ৮৩ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার ৭৫ টাকা করে বিক্রয় করে ৬২ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করা হবে। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ৫৫ লাখ ৯৭ হাজার ১৫টি শেয়ার ৬৭ টাকা করে বিক্রয় করা হবে। এ শেয়ার বিক্রয় থেকে ৩৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা সংগ্রহ করা হবে।
এ টাকা দিয়ে কোম্পানিটি গবেষণা ও উন্নয়ন, যন্ত্রপাতি ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাত বাবদ ব্যয় করবে। কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।
২০১৭ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পত্তি মূল্য (পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতিসহ) দাঁড়িয়েছে ৫৫ দশমকি ৭০ টাকা। শেয়ারপ্রতি নিট সম্পত্তি (পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতি ব্যতীত) দাঁড়িয়েছে ৪১ দশমিক ৯৪ টাকা। আর কর পরবর্তী ভারিত গড় হারে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৩ দশমিক ৩১ টাকা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে