স্পোর্টস: ঠিক নিরানব্বই’ দিন পর শুরু হতে যাচ্ছে ৫০ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসর আইসিসি বিশ্বকাপ। আগামি ৩০ মে থেকে ১৪ জুলাই ইংল্যান্ড এ- ওয়েলসে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর। সর্বশেষ ১৯৯৯ বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল ইংল্যান্ড।
আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ আটটি স্বাগতিক ইংল্যান্ড, বাংলাদেশ, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা এবং বাছাই পর্ব থেকে উন্নীত ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তানসহ মোট দশটি দল অংশ নিচ্ছে এবারের টুর্নামেন্টে। এই দশ দলকে নিয়ে লিগ পর্ব অনুষ্ঠিত হবে। লিগ পর্ব শেষে পয়েন্ট টেবিলের সেরা চার দল খেলবে সেমিফাইনাল। সেমি শেষে হলে ফাইনাল। ইংল্যান্ড এ- ওয়েলসের মোট ১১টি ভেন্যুতে এবারের আসরের ৪৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ১৪ জুলাই ক্রিকেটের মক্কা খ্যাত লর্ডসের ফাইনাল দিয়ে পর্দা নামবে এবারের আসরের। লন্ডনের ওভালে ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি হবে লন্ডনের ওভালে।
এই শোপিচ ইভেন্টে কোন দলের কি অবস্থান তা নিয়েই এএফপির পর্যালোচনা।
আফগানিস্তান:
২০১৫ বিশ্বকাপে প্রথমবার অংশ নেয়ার পর থেকে আফগানিস্তান দলটি অত্যন্ত দ্রুত উন্নতি করছে। তবে জিম্বাবুয়েতে অনুষ্ঠিত বাছাই পর্বে তীব্র প্রতিদ্বন্দিতার পর ২০১৯ বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে।
তবে দলটিকে দুর্বল ভাবার কোন অবকাশ নেই। ২০১৮ এশিয়া কাপে যুদ্ধ বিধ্বস্ত আফগানরা বাংলাদেশ ও শ্রীলংকাকে পরাজিত করেছে। এমনকি চ্যাম্পিয়ন ভারতের বিপক্ষে তারা টাই করেছে।
গেম চেঞ্জার: আফগানিস্তান দলের তুরুপের তাস হবে লেগ স্পিনার রশিদ খান। যুদ্ধ বিধ্বস্ত নানগারহারে জন্মগ্রহণ করা ২০ বছর বয়সী এ তারকা বোলার উইকেট শিকারে বেশ পারঙ্গম। মাত্র ৪৪ ওয়ানডে ম্যাচে একশ উইকেটের মালিক হয়েছেন তিনি। ডেথ ওভারের ন্যায় পাওয়ার প্লেতেও বোলিং করতে পারেন তিনি।
অস্ট্রেলিয়া:
বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এবং টুর্নামেন্ট ইতিহাসে সবচেয়ে সফল পাঁচবারের শিরোপা জয়ী। নিজ মাঠে ফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সর্বশেষ আসর ২০১৫ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে নেয় দলটি। তবে গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির পর থেকেই ধুকছে দলটি।
২০১৮ সালে টেস্ট ও ওয়ানডে দুই সিরিজে ইংল্যান্ডের কাছে ৯-১ ব্যবধানে হেরেছে দলটি। এমনকি নিজ মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে(২-১) এবং ভারতের কাছে (২-১) ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে তারা।
গেম চেঞ্জার: স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওয়ার্নারকে তাদের ত্রাণকর্তা হিসেবে দেখা হচ্ছে। বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির দায়ে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে তারা উভয়েই মার্চ মাসের শেষ দিকে আবার ফিরতে পারবেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। সরাসরি তারা দলে জায়গা পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। দুজনে মিলে ২১৪ ওয়ানডে ম্যাচে ৭৭৭৪ রান করা এ তারকা দুই ব্যাটসম্যানের ওপর প্রত্যাশাটা অনেক বেশি।
বাংলাদেশ:
২০১৫ বিশ্বকাপে কোয়ার্টারফাইনাল খেলা বাংলাদেশ দলটি যুক্তরাজ্যের মাটিতে মনের মণিকোঠায় স্থান পাওয়ার মত কিছু পারফরমেন্স করতে চায়। নিজেদের দিনে বিশ্বের যেকোন দলকে হারাতে সক্ষম ওয়ানডে ক্রিকেটে পুরোপুরি বদলে যাওয়া টাইগাররা। অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দলটি ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল খেলেছে। ২০১৮ সালে ২০ ওয়ানডে খেলে বাংলাদেশ ১৩ ম্যাচে জয়ী হয়েছে। ইংল্যান্ড ও ভারতের পর গত বছর তৃতীয় সর্বোচ্চ ওয়ানডে ম্যাচ জয় করা দল বাংলাদেশ। ৫০ ওভার ফর্মেটে চতুর্থ বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া মাশরাফি বিন মর্তুজা, তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান এবং মুশফিকুর রহিমের মত অভিজ্ঞতা সম্পন্ন খেলোয়াড়দের ওপর নির্ভর করবে টাইগাররা।
গেম চেঞ্জার: ৩৫ বছর বয়সে এখনো বাংলাদেশ দলের পেস আক্রমণের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি। তবে অনেক বেশি প্রভাব ফেলতে পারেন প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে নামা বাঁ-হাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ২০১৮ সালে আইসিসির বর্ষ সেরা ওয়ানডে দলে জায়গা পাওয়া বাংলাদেশের একমাত্র খেলোয়াড় মুস্তাফিজ। ইংল্যান্ডের পেস সহায়ক কন্ডিশনে তার গতি এবং অসাধারণ সুয়িং দারুণ কার্যকর হতে পারে। আসন্ন বিশ্বকাপে পুরোপুরি ফিট রাখতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ২৩ বছর বয়সী এ তারকা পেসারকে আগামি মার্চ-এপ্রিলে অনুষ্ঠিতব্য আকর্ষণীয় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে (আইপিএল) খেলার অনুমতি দেয়নি।
ইংল্যান্ড:
১৯৭৫ সালে শুরুর পর প্রতিটি আসরে অংশ নিলেও এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ শিরোপা জিততে পারেনি দলটি। তাদের সেরা নৈপুণ্য তিন বার ফাইনাল খেলা, যেটি ছিল সর্বশেষ ১৯৯২ বিশ্বকাপে। বাংলাদেশের কাছে পরাজিত হয়ে ২০১৫ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই লজ্জাজনকভাবে বিদায় নিতে হয় ইংলিশদের। তবে গত বিশ্বকাপের পর সাবেক আয়ারল্যান্ড ব্যাটসম্যান ইয়োইন মরগানের নেতৃত্বে ইংল্যান্ড ৫০ ওভার ফর্মেটে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ স্থান দখল করেছে। হোম কন্ডিশন হয়তোবা খুব বেশি সহায়ক না-ও হতে পারে। ১৯৭৯ আসরের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে পরাজিত হওয়ার পর নিজ মাঠে পঞ্চম টুর্নামেন্টে আসতে পারে তাদের সেরা পারফরমেন্স।
গেম চেঞ্জার: ইংল্যান্ড দলে বেশ কয়েকজন ম্যাচ উইনার রয়েছে। তবে উইকেটরক্ষ ব্যাটসম্যান জন বাটলারের রয়েছে অবিশ্বাস্য শট খেলার ক্ষমতা। ফাস্ট বোলারদের গুড লেন্থের বল ‘স্কুপ’ দিয়ে বাউন্ডারি পার করতে বেশ পারদর্শী তিনি। অবিশ্বাস্য কমবেশি ১১৭ স্ট্রাইক রেটে ছয়টি ওয়ানডে সেঞ্চুরি রয়েছে ২৮ বছর বয়সী এ তারকার।
ভারত:
স্বাগতিক ইংল্যান্ডের ন্যায় ফেবারিট হিসেবে বিশ্বকাপ শুরু করবে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন হেভিওয়েট ভারত। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে ওয়ানডে সিরিজ জয় করা র‌্যাংকিংয়ের দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভারতীয় দলটি রয়েছে ফর্মের তুঙ্গে।
ওয়ানডে ক্রিকেটে ২০১৮ সালে দারুণ সাফল্য পেয়েছে ভারতীয় দল। এ সময়ে তারা দক্ষিণ আফ্রিকায় (৫-১), ওয়েস্ট ইন্ডিজে (৩-১) ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ জয় করেছে। জিতেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপের শিরোপাও। ইংল্যান্ডের মাটিতে সুখ স্মৃতি রয়েছে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ভারতের। কেননা ১৯৮৩ সালে লর্ডসেই প্রথম বিশ্বকাপ শিরোপা জিতেছিল তারা।
গেম চেঞ্জার: দশ দল নিয়ে অনুষ্ঠিতব্য এ টুর্নামেন্টে ভারতীয় দলের সম্ভাবনায় কোহলি যদি মুখ্য হন তবে বোলিং বিভাগে দায়িত্ব পালন করতে পারেন নতুন স্পিন তারকা কুলদীপ যাদব। গত বছর মাত্র ১৯ ওয়ানডেতে ৪৫ উইকেট শিকার করেছেন ২৪ বছর বয়সী কুলদীপ। প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের জন্য বিপজ্জনক হতে পারে বাঁ-হাতি রিস্ট স্পিন। রান সংগ্রহের দায়িত্ব পালন করবেন ২০১৮ সালে ১৪ ওয়ানডে ম্যাচে বিস্ময়কর ব্যাটিং গড়ের মালিক কোহলি।
নিউজিল্যান্ড:
ছয় বার সেমিফাইনাল এবং ২০১৫ আসরের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে বড় ব্যবধানে পরাজিত হওয়া ব্ল্যাক ক্যাপসরা প্রথমবার বিশ্বকাপ শিরোপার আশা করছে।
ব্রেন্ডন ম্যাকালামের নেতৃত্বে ২০১৫ বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলার পর অধিনায়কের দায়িত্ব পান কেন উইলিয়ামসন। বেশ কিছু দিন যাবতই তার নেতৃত্বে আগ্রাসী ক্রিকেট খেলছে নিউজিল্যান্ড। অবশ্য এ ধারাটি শিখিয়ে গেছেন ম্যাককালামই। নিজেদের দিনে যেকোন দলের বিপক্ষে ভয়ংকর হয়ে উঠতে পারে তারা। যদিও গত জানুয়ারীতে নিজ মাঠে সফরকারী ভারতের কাছে ৪-১ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে তারা।
গেম চেঞ্জার: নিউজিল্যান্ডের সিম এ্যাটাকে সত্যিকারের পেস যুক্ত করেছেন স্পিড স্টার লোকি ফার্গুসন। নিয়মিতভাবে ঘন্টায় ১৫০ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করতে সক্ষম এ তারকা বাউন্সার ও ইয়র্কার দিয়ে ঘায়েল করতে পারেন যে কোন ব্যাটসম্যানকে।
নিজের খেলায় অতীব প্রয়োজনীয় ধারাবাহিকতা আনতে সক্ষম হওয়া ২৭ বছর বয়সী ফার্গুসন। প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে নামা এ গতি তারকার আগ্রাসনের দিকে তাকিয়ে নিউজিল্যান্ড।
পাকিস্তান:
নিশ্চিত করেই বলা যায়, পাকিস্তান একটি আনপ্রেডিক্টেবল দল। দুই বছর আগে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে উদ্বোধনী ম্যাচে ভারতের কাছে ১২৪ রানে পরাজিত হওয়ার পর ফাইনালে সেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দলটিকেই ১৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছিল পাকিস্তান।
সরফরাজ আহমেদে নেতৃত্বধীন পাকিস্তান দলে মোহাম্মদ আমির থেকে উসমান সিনওয়ারি, হাসান আলী পর্যন্ত কয়েকজন চিত্তাকর্ষক মেধাবী খেলোয়াড় রয়েছে। তাদের যাচ্ছেতাই ব্যাটিং থেকে বেরিয়ে আসতে পারলে ১৯৯২ বিশ্বকাপ জয়ী ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন সাফল্যের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে পারে তারা। একবারই ১৯৯২ বিশ্বকাপ জয় করেছে পাকিস্তান।
গেম চেঞ্জার: মাত্র ২৪ বছর বয়সেই বাবর আজমকে ভারতীয় সুপাস্টও বিরাট কোহলির সঙ্গে তুলনা করা হয়। ওয়ানডে ক্রিকেটে বাবরের গড় রান ৫১’র চেয়ে বেশি। ইতোমধ্যেই আটটি সেঞ্চুরি এবং ১০টি হাফ সেঞ্চুরির মালিক তিনি।
দক্ষিণ আফ্রিকা:
১৯৯২ বিশ্বকাপে প্রথমবার অংশ নেয় দলটি। প্রথমবারই সেমিফাইনালে উন্নীত হলেও বৃষ্টির কারণে শেষ পর্যন্ত হার মানতে হওয়া প্রোটিয়াদের অধিকাংশ আসরেই নক আউট পর্বে বিদায় নিতে হয়েছে। কেবলমাত্র ২০১৫ বিশ্বকাপেই কোয়ার্টার ফাইনালে জয় পেয়েছে ‘চোকাররা’। চারবার সেমিফাইনাল এবং দুইবার কোয়ার্টার ফাইনালে বিদায় নেয়া দলটির ভক্ত-সমর্থকদের হৃদয় ভেঙ্গে দিয়েছে। ১৯৯০ দশকের শেষ এবং ২০০০ শতকের শুরুর দিকে দলটির বোলিং আক্রমণ ছিল অত্যন্ত শক্তিশালী। তবে ভাল মানের অলরাউন্ডরের অভাব এবং ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স ও ফাস্ট বোলার মরনে মরকেলের অবসরের পরও বড় আশা নিয়েই ২০১৯ বিশ্বকাপ খেরতে নামবে প্রোটিয়ারা। ২০১৮ সালে তারা ১২ ওয়ানডে জিতেছে, হেরেছে ১০টি।
গেম চেঞ্জার: হার্ড হিটিং ব্যাটসম্যান এবং অসাধারণ ফিল্ডার ডেভিড মিলার যে কোন অবস্থায় একটি ম্যাচের গতি পরিবর্তন করে দিতে সক্ষম। সম্প্রতি নিজ মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় করা টি-২০ সিরিজের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।
ব্রেকথ্রু এনে দেয়া খেলোয়াড় হতে পারেন ফাস্ট বোলার লুঙ্গি এনডিগি। কাঁধে ইনজুরির কারণে চলতি মৌসুমের অধিকাংশ সময়ই তাকে মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছে। তবে সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরেছেন তিনি এবং ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক ক্রিকেটে গতি নিয়ে বোলিং করছেন তিনি।
শ্রীলংকা:
সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট জিতলেও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শীর্ষ দলগুলোর জন্য মোটেই হুমকি নয় ম্যাচ ফিক্সিং ও দুর্নীতিতে জর্জরিত ১৯৯৬ বিশ্বকাপ জয়ী শ্রীলংকা। ২০১৫ বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে বড় ব্যবধানে পরাজিত ওয়ার পর থেকে তাদের ক্রিকেট ভবিষ্যৎ অনেকটাই ফিকে হয়ে গেছে।
নিজ মাঠে সফরকারী দুর্বল জিম্বাবুয়ের কাছে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে হারার পর ২০১৭ সালে শ্রীলংকা ক্রিকেটের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ হয়ে যায়। এমনকি গত দুই বছরে দ্বিপাক্ষিক কোন সিরিজ জিততে পারেনি তারা।
পারফরমেন্স ছাড়াও গত বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের আগে ম্যাচ পাতানো ফন্দি আটাসহ অভিযোগের কেন্দ্র বিন্দুতে পরিনত হয়েছে শ্রীলংকান ক্রিকেট। তবে গত সপ্তাহে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ডারবান টেস্টে ১ উইকেটের পাওয়া জয় বিশ্বকাপে তাদেরকে আপসেট ঘটানোর আশা যোগাবে।
গেম চেঞ্জার: শ্রীলংকা দলের বোলিং বিভাগে এখনো সেরা ‘বুড়ো ঘোড়া’ লাসিথ মালিঙ্গা এবং ইংল্যান্ড এ- ওয়েলসে দ্বীপ রাষ্ট্রটির কোন সম্ভাবনা তৈরিতে এখনো গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারেন তিনি। সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডে ৩-০ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ হারা শ্রীলংকা দলের সেরা পারফরমার ছিলেন তিনি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭ উইকেট শিকার করেন তিনি। দলের অধিনায়কত্বও করেছেন তিনি।
২০০৪ সালে ওয়ানডে অভিষেক হওয়া মালিঙ্গা ধুকতে থাকা শ্রীলংকাকে একনো জাগিয়ে তোলার ক্ষমতা রাখেন। তার অভিজ্ঞতা এবং ডেথ ওভারে ইয়র্কারের মাধ্যমে রান আটকে দেয়ার সক্ষমতা কাজে লাগাতে পারে শ্রীলংকা।
ওয়েস্ট ইন্ডিজ:
সম্প্রতি নিজ মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতলেও টুর্নামেন্টে ফেবারিটের তকমা থাকছে না ১৯৭৫ ও ১৯৭৯ প্রথম দুই বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করা ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ২০১১ এবং ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল পার হতে না পারা দলটি ২০১৯ বিশ্বকাপ খেলতে এসেছে বাছাই পর্ব পেরিয়ে।
২০১৮ সালে ১৮টির মধ্যে মাত্র ৮টি ওয়ানডে জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নিজ মাঠে বাংলাদেশের কাছে সিরিজ হেরছে তারা। হেরেছে ভারতের কাছেও। ২০১৭ সালে ২২ ম্যাচের মধ্যে মাত্র ৩টি ওয়ানডে জিতেছে ক্যারিবীয়রা।
গেম চেঞ্জার: ৪০ বছরে পা রাখতে যাওয়া ক্রিস গেইল অবসরের আগে জ¦লে উঠবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে দলের তারকা হতে পারেন ২২ বছর বয়সী শিমরোন হেটমায়ার।
কিংবদন্তী ব্রায়ান লারার সঙ্গে তুলনা করা গায়ানায় জন্মগ্রহণ করা বাঁ-হাতি এ ড্যাশিং ব্যাটসমান ২০ ওয়ানেড ক্যারিয়ারে ইতোমধ্যেই তিনটি সেঞ্চুরি করেছেন। যার স্ট্রাইক রেট গেইলের চেয়েও বেশি। ২০১৬ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের অধিনায়ক ছিলেন হেটমায়ার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে