ডিএ: সাইকেল চালাচ্ছিল সুমি। পেছন বসা শাহানাজ। দুই সহপাঠী তারা। কোচিং সেন্টারে পড়া শেষে বাড়ি ফিরছিল দুই স্কুলছাত্রী। আচমকা বিপরীত দিক থেকে একটি ট্রাক এসে চাপা দিল সাইকেলটাকে। সুমি আক্তার (১৫) ঘটনাস্থলেই নিহত। গুরুতর আহত শাহানাজ হাসপাতালে। ট্রাক নিয়ে চালক পলাতক। আজ বুধবার সকালে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ছাইতানতলা বাজার এলাকায় সুন্দরগঞ্জ-বামনডাঙা সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সুমি সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের রামভদ্র (জানের পাড়) গ্রামের আবদুল গণির মেয়ে। আহত শাহানাজ একই গ্রামের শাহ আলমের মেয়ে। হতাহত দুই ছাত্রী উপজেলার মনমোহিনী উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকালে সুমি ও শাহানাজ একই সাইকেলে করে স্থানীয় একটি কোচিং সেন্টার থেকে বাড়ি ফিরছিল। সুমি সাইকেল চালাচ্ছিল। পেছনে বসে ছিল শাহানাজ। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে তারা সুন্দরগঞ্জ-বামনডাঙা সড়ক ধরে বাইসাইকেলে করে ছাইতানতলা বাজারসংলগ্ন শাখামারা সেতুর কাছে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা মালবাহী একটি ট্রাক সাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে সুমি ঘটনাস্থলেই মারা যায়। শাহানাজ গুরুতর আহত হয়।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম আবদুস সোবহান বলেন, ট্রাকচালককে আটকের চেষ্টা চলছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে