ডিএ: বগুড়ায় বিএনপির এক নেতাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত মাহবুব আলম শাহীন (৫৫) সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তার পরিবহন ব্যবসা ছিল। গত রোববার রাতে বগুড়া শহরের ঝোপগাড়ী এলাকার বাড়িতে ফেরার পথে তাকে হত্যা করা হয় বলে পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছে। স্থানীয়রা জানায়, রাত ১১টার দিকে শহরের নিশিন্দারার হাউজিং এস্টেট এলাকার একটি শরীর চর্চা কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে বাসার ফেরার পথে ৪-৫জন শাহীনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নেয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে শাহীন আগেই মারা গেছেন। খবর শুনে জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও হাসপাতালে লাশ দেখতে যান। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তি সাংবাদিকদের বলেন, শাহীনকে কারা, কেন হত্যা করেছে, তা এখনও জানা যায়নি। খুনিরাও চিহ্নিত হয়নি। বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন রাত ১২টার দিকে শজিমেক হাসপাতালে যান। তারা এই হত্যার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে খুনিদের গ্রেফতারের দাবি জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে