রিদওয়ান আহেমদ: মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ির ইসলামপুর গ্রামের ফজল দেওয়ান এর স্ত্রী মালেকা বেগম (৩৭), ও মৃত আজিজ মোড়ল এর ছেলে গণি মোড়ল (৩৮) এর বিরুদ্ধে আবাসভূমি বিক্রির নাম করে প্রতারণাসহ টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, টঙ্গীবাড়ী থানা এলাকার হাটবালিগাঁও মৌজাভুক্ত আর.এস খতিয়ান ৯৫ দাগের ৫৩৬ এবং ৩৩৭ এর ৯.৫০ শতাংশের দাগে ৫.৫০ শতাংশ ভূমি মালিক মালেকা বেগম ও গণি মোড়ল। তাদের নগদ টাকার প্রয়োজন উল্লেখ করে উক্ত জমি থেকে ৯.৪১ শতাংশ জমি বিক্রি করার ঘোষণা দেন এবং প্রতি শতাংশ জমির মূল্য ১,৩০,০০০/- টাকা নির্ধারণ করে দেন। এই ঘোষণার কথা জানতে পেরে একই গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন এর দুই পুত্র মোঃ ওবায়েত উল্লাহ (৩১) ও মোঃ হোসেন শেখ (৩৩) উক্ত জমি ক্রয়ের ব্যপারে তাদের আগ্রহের কথা জমির মালিক মালেকা বেগম ও গণি মোড়লকে জানায়। জমির মালিকদ্বয় সম্মতি প্রকাশ করলে জমির বায়না বাবদ গত ১০/১১/২০১৮ ইং তারিখে নগদ ৭০,০০০/ (সত্তুর হাজার) টাকা এবং তাদের (জমি ক্রয়ে আগ্রহির) বোন মাহমুদা বেগম এর সেভিং একাউন্ট যমুনা ব্যাংক বালিগাঁও শাখার ২,০০,০০০/ (দুই লক্ষ) টাকার একটি চেক (নং- A1675776) মালেকা বেগমকে প্রদান করেন। পর্যায়ক্রমে গত ৯/১২/২০১৮ ইং তারিখে সাক্ষীগণের উপস্থিতিতে ৫০ হাজার টাকা এবং মোঃ টিপু হাওলাদার (জমি ক্রয়ে আগ্রহির দুলাভাই) বালিগাঁও টঙ্গীবাড়ির নিকট হতে নগদ ৭০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। গত ১৩/১২/২০১৮ ইং তারিখে ব্যাংক এশিয়া কেরাণীগঞ্জ কালীগঞ্জ শাখায় মালেকা বেগম এর একাউন্ট (নং- ১৬২৩৪০০৪৮০৩) তে ১,০০,০০০/ (এক লক্ষ) টাকা এবং গত ২/১/২০১৯ ইং তারিখে ব্যাংক এশিয়া বালিগাঁও শাখায় ৯০ হাজার টাকা জমা প্রদান এবং বিভিন্ন সময় কিস্তির মাধ্যমে গণি মোড়লকে ৩০ হাজার টাকা প্রদানসহ সর্বমোট ৫,৫৫,০০০/ টাকা পরিশোধ করা হয়। উক্ত টাকা গ্রহণের পর থেকে মালেকা বেগম ও গণি মোড়লের আচরণে পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেলে তাদেরকে জমি রেজিস্ট্রি করে দেয়ার জন্য বললে আজ না কাল করে দিবো-দিচ্ছি বলে টালবাহানা করে টাকা আত্মসাৎ করার চেষ্টা করে। পরবর্তীতে রেজিস্ট্রির জন্য চাপ দিলে মালেকা বেগম, গণি মোড়লসহ অজ্ঞাত কয়েকজন মিলে জমি ক্রয়ে আগ্রহি মোঃ ওবায়েত উল্লাহ ও তার ভাই মোঃ হোসেন শেখসহ তাদের পরিবারকে ভয়-ভিতি প্রদর্শনসহ হত্যার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।
এই বিষয়ে গত ২৭/৪/২০১৯ ইং তারিখে টঙ্গীবাড়ি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি এবং গত ০২/০৫/২০১৯ ইং তারিখে উপ মহা পুলিশ পরিদর্শক ঢাকা রেঞ্জ বরাবর একটি অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে মর্মে সূত্রে জানা গেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে