লাইফস্টাইল: পেট ফোলাভাব, কাজ করতে কষ্ট হওয়া, বমিভাব ইত্যাদি এই অস্বস্তির অন্তর্ভুক্ত।
অনেকসময় খাওয়ার পর মনে হয় আজ বেশি খাওয়া হয়ে গেছে। পেট ফুলে যায়, শরীর অত্যন্ত ভারী মনে হয়, বসে থাকা কিংবা নড়াচড়া করতে কষ্ট হয়।
এর কারণ হল অতিরিক্ত খাবার, পানীয় হজমতন্ত্রে প্রবেশ করা, ফলে বাড়তি গ্যাসের উৎপত্তি কিংবা হজমতন্ত্রের কোনো পেশি সঠিকভাবে কাজ না করা।
পেটে ব্যথাও হতে পারে।
ভারতীয় পুষ্টিবিদ লিউক কোতিনহো খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানিয়েছেন, এমন একটি পানীয় সম্পর্কে যা খাওয়ার আগে পান করলে এই ধরনের সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যেতে পারে।
উপকরণ: পানীয়টি তৈরি করতে প্রয়োজন হবে এক টেবিল-চামচ ইসবগুল, এক গ্লাস পানি আর দুই টেবিল-চামচ অ্যাপল সাইডার ভিনিগার।
সবকিছু একসঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে নেড়ে নিলেই পানীয়টি তৈরি। অ্যাপল সাইডার ভিনিগারের স্বাদ ভালো না লাগলে এক টেবিল-চামচ দিতে পারেন কিংবা পুরোপুরি বাদ দিতে পারেন।
সকাল, দুপুর ও রাতের খাবারের কমপক্ষে ২০ থেকে ৩০ মিনিট আগে পানীয়টি পান করতে হবে। আর ভিনিগারটিতে থাকতে হবে ‘মাদার কালচার’, অন্যথায় তা কোনো কাজে আসবে না।
‘মাদার কালচার’ সমৃদ্ধ অ্যাপল সাইডার ভিনিগারে থাকে সঠিক ব্যাক্টেরিয়া যা শরীরের ‘প্রোবায়োটিক’কে সক্রিয় করে।
খাওয়ার আগে এই পানীয় পান করলে পেট ফোলাভাব, পেটের গোলমাল, ব্যথা, গ্যাসের সমস্যা ইত্যাদি দূরে থাকবে। পানীয়টি পাকস্থলিতে একটু বেশি পরিমাণে অ্যাসিড নিঃসরণে সাহায্য করে, যা খাবারের বিভিন্ন প্রোটিন ও ব্যাক্টেরিয়া ভাঙতে সাহায্য করে। অন্ত্রের জন্যও এটি উপকারী।
পানীয়র উপকার বুঝতে হলে কমপক্ষে দুতিন সপ্তাহ টানা এটি পান করতে হবে। তবে মনে রাখতে হবে সব মানুষের শরীর একই রকম নয়, তাই সবার জন্য এই পানীয় থেকে কাক্সিক্ষত উপকার নাও মিলতে পারে।
দিনে দুবার পানীয়টি পান করলে যেকোনো একবার তার সঙ্গে দারুচিনির গুঁড়া মেশাতে পারেন। এতে রক্তে শর্করার মাত্রা হঠাৎ বেড়ে যাবে না।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে