ডিএ: ফরিদপুরের সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য রুশেমা বেগম হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। অসুস্থ অবস্থায় গত মঙ্গলবার ফরিদপুর হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১১টা ৩৫ মিনিটে তার মৃত্যু হয় বলে পরিবারের সদস্যরা জানান। আওয়ামী লীগের এই সংসদ সদস্যের বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।তিনি দীর্ঘদিন ফরিদপুরের ঈশান মেমোরিয়াল উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়নে গত ২০ ফেব্রুয়ারি তিনি সংরক্ষিত আসনের এমপি হিসেবে শপথ নেন। স্বামীর পদবিতে রুশেমা ইমাম নামেই তিনি বেশি পরিচিত ছিলেন। তার স্বামী ইমামউদ্দিন আহমাদও একসময় ফরিদপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর ইমামউদ্দিন ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতির দায়িত্ব সামলেছেন দীর্ঘদিন। ২০০৬ সালে এক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ইমামউদ্দিন। দুই ছেলে ও এক মেয়েকে রেখে গেছেন এই দম্পতি। তাদের ছেলে সাইফুল আহাদ সেলিম জানান, গত মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে তাদের হাবেলি গোপালপুরের বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন তার মা রুশেমা। হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ১১টার দিকে এই সংসদ সদস্যের মৃত্যু হয়। সাইফুল আহাদ সেলিম জানান, গতকাল বুধবার আছরের নামাজের পর ফরিদপুর পুলিশ লাইনস মাঠে তার মায়ের জানাজা হবে। পরে কমলাপুর ইমামবাগে পারিবারিক কবরস্থানে স্বামীর কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে।
স্পিকারের শোক: জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য রুশেমা বেগমের মত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এক শোকবার্তায় স্পিকার বলেন, রুশেমা বেগম ছিলেন একজন নিবেদিতপ্রাণ সমাজসেবী ও নির্লোভ রাজনীতিবিদ। তাঁর মৃত্যুতে ফরিদপুরবাসী একজন অভিভাবককে হারালো। তিনি শোক-সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সহমর্মিতা প্রকাশ করেন। এছাড়াও রুশেমা বেগমের মৃত্যুতে জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া এবং চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে